হাসি পেলে হাসুন, কিম্বা...২

                  • বোকাসোকা •

সেদিন আমার এক ভালো বন্ধুর সাথে কথা হতে হতে সে ফটাস করে বলে ফেললো, “সব মানুষের মধ্যে কিছু না কিছু বোকামি থাকে। এমনকি কখনো কখনো তা শিশুদের বোকামিকেও হার মানায়।…”

আমি তাকে এবার থামিয়ে দিলুম। কথাটা কেমন কেমন মনে হচ্ছে। ও— কি আমাকে ঘুরিয়ে বোকা বলতে চাইছে নাকি! ঠিক বুঝলাম না। তাহলে তো এই বোকার দলে সেও পড়ে যায়। এবার তার নিজের কথাটা তাকে গেলানোর জন্য বললুম, “এরকমটা মনে হওয়ার পেছনে কোনো যুক্তি তোর কাছে আছে?..”

তেড়েফুঁড়ে উঠে সে বললো, “আলবাৎ আছে! পৃথিবীতে যে যত বিদ্যাধর, বুদ্ধিধর, শক্তিধর হোক না কেন, তার কাজে কিছু না কিছু বোকামী থাকবেই। কখনো তা প্রকাশ্যে আসে আবার কখনো থাকে গোপন। …এই তো দু’দিন আগে টিভিতে একটা অনুষ্ঠান দেখছিলাম। একজন পরামর্শ বিশেষজ্ঞ উপস্থিত হয়ে দর্শকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছিলেন। সেদিনকার বিষয় দেওয়া হয়েছিলো— ‘বোকা ও হাবা’।

সেখানে একজন প্রশ্ন করলো, ‘স্যার, আমি একটু সমস্যায় আছি। বলতে লজ্জা করছে।’

বিশেষজ্ঞ বললেন, ‘কোনো গোপন রোগ নয় তো!’ প্রশ্নকারী বলে, ’না স্যার, ওরম কিছু না, তবে অনেক জটিল…’

বিশেষজ্ঞ ভরসা দিয়ে বললেন, ’সাহস করে বলুন সমস্যা নেই, জানেন তো…লজ্জা, ঘৃণা, ভয় — তিন থাকতে নয়।’

প্রশ্নকারী বললো, ‘হ্যাঁ স্যার, সাহস বেড়েছে, বলছি। আমার নিজেকে একখান বোকা গাধা বলে মনে হয়। বলছিলাম, চালাক হতে গেলে কী করবো!’

বিশেষজ্ঞ জিজ্ঞাসা করলেন, ‘আপনার বয়স কতো বলুন তো, আপনি কি করেন?’

‘আজ্ঞে স্যার, বয়স ধরুন ৫০ …স্থানীয় পৌরসভার নতুন কাউন্সিলর এবং পদাধিকার বলে দুয়েকটা সংস্থার চেয়ারম্যান পদে অলংকার হয়ে আছি।’

‘আমি ভাবতে পারছি না, আপনার মতো মানুষ নিজেকে বোকা পাঁঠা না-কি গাধা, হ্যাঁ গাধা ভাবতে পারলো কিভাবে! গাধা তো দূরের কথা, আমি অনেক কাউন্সিলরকে চিনি যারা নিজেদের ঘোড়া বা বাঘ ভাবেন। তারা বাইরে থাকেন গাধার মতো কিন্তু ভিতরে আসলেই সুচতুর ঘোড়া। কেনাবেচার ঘোড়াও বলতে পারেন। অথচ এই প্রথম একজন আপনার মতো ব্যক্তিকে দেখছি যিনি নিজেকে বোকা ভাবছেন। আপনি মাধ্যমিকে অঙ্কে কত পেয়েছিলেন?’

‘আজ্ঞে ঐ মাধ্যমিক সত্যিকার পাশ দিই নাই, তবে জীবনে যতগুলি পরীক্ষায় বসেছি সর্বোচ্চ ১০০ পেয়েছি।’

‘তবে তো অঙ্ক মেলাতে আপনার কোনো অসুবিধা হবার কথা নয়। কাউন্সিলর হয়ে অঙ্ক ছাড়া আর মেলানোর কী আছে বলুন! অপেক্ষা করুন, মনে হচ্ছে সময়ের সাথে সাথে সব ঠিক হয়ে যাবে।’

এরপরই অন্য একজন জানতে চাইলো — ‘স্যার, বিশ্বাস করুন জীবনে আমি কাউকে আজ পর্যন্ত বোকা বানাইনি। খুব ইচ্ছা হয়। কাউকে বোকা বানাতে গেলে আমাকে কি করতে হবে?’

ঐ বিশেষজ্ঞ তাকে বললেন, ‘আপনার জিজ্ঞাসার জবাব দিচ্ছি। তার আগে আমায় বলুন, আপনি নিজে কখনো বোকা বনে গেছেন?’

প্রশ্ন জিজ্ঞাসাকারী বললো, ‘হ্যাঁ, বহুবার। ধরেন গিয়ে পঞ্চাশবার…।’

‘কীভাবে, তা অল্পকথায় আমাদের জানান।’

‘স্যার, জীবনে অনেককে প্রচুর টাকা ধার দিয়েছি। ঠকেছি আবার ধার দিয়েছি। কিন্তু খুব বেশি ফেরত পাইনি।’

‘এখন আপনি উত্তর পেয়ে গেছেন। এটাকে কাজে লাগাতে হবে। ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়ার ব্যালেন্স যাকে বলে। দেখেছেন নিশ্চয়ই তথাকথিত ফুলো ব্যবসায়ীরা ব্যাঙ্ক থেকে কোটি কোটি গাঁট ধারধোর করে। একমাত্র যোগসাজসে এমন হওয়া সম্ভব। তারপর দেখবেন জনগণের সেই সম্পদ একদিন ফরফিট গায়েব। এখানে ব্যাঙ্ক কি বোকা? —না।… আর ব্যবসায়ী? —সে এক সেয়ানা শেয়াল। বলির পাঁঠা হয় ছাপোষা নীতিবাদী মানুষ।…তাই এখানে ভূমিকা আপনার। সম্ভব হলে জনগণ জনার্দনের হয়ে আপনি ঐ ফুলো ব্যবসায়ীদের ঠুকবেন। কাউকে ঠকাতে পারছেন বলে তখন ঢেকুর তুলতে পারবেন।’ … কিরে তোর মন মতো উত্তর কি দিতে পারলাম! নাকি আরও কিছু যু্ক্তি দিয়ে তোকে জলের স্বচ্ছতা এনে দেবো!” আমাকে উদ্দেশ্য করে বন্ধু বললো।

নাঃ… এবিষয়ে আমি আর বিশেষ সাড়াশব্দ করিনি, তাই তারপর আলোচনা আর বিশেষ এগোয়নি।

 একটি জাপানি প্রবাদ আছে, “নাচি বা না-ই নাচি, আমরা আসলেই বোকা, তারচেয়ে বরং আমরা নাচতে পারি!”

ঠিকই তো, যখন নাচলেও বোকা না নাচলেও বোকা তখন নেচে বোকা হতে অসুবিধা কি।

   আমেরিকার ঔপন্যাসিক ও ছোট গল্পলেখক লুইস লা’আমর (১৯০৮ - ১৯৮৮) বলেছিলেন, “চালাক লোক লড়ে যায় জেতার জন্য। কিন্তু সম্ভাব্য হারের জন্য যার কোনো পরিকল্পনা নেই, সে হয় দ্বিগুণ বোকা।”

    আমেরিকার আর এক মঞ্চ ও সিনেমা অভিনেতা উইল রজার্স (১৮৭৯ - ১৯৩৫) একবার বলেছিলেন, “একজন বোকা এবং তার সম্পদ শীঘ্র নির্বাচিত হয়।” বাস্তবে তো তাই হচ্ছে। বোকামি আর সম্পদ দিয়েই ক্ষমতা দখল করা হচ্ছে। অতিসম্প্রতি যার অতি উজ্জ্বল নিদর্শন ছিলো ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং আরো আছে...।

    যদি আমার কথা বলি, তাহলে বলতে হয় আমি ক্রমশঃ মাথামোটা হয়ে যাচ্ছি, মিডিয়া আর সোস্যাল মিডিয়ার পাল্লায় পড়ে। এখন নির্মল স্বচ্ছ হাসি বলতে যা বোঝায় তার লেশমাত্র আমার চৌহদ্দিতে নেই। আশপাশ ভালগার দৃশ্য, ভালগার লেখা আর ভালগার হাসিতে ভরে গেছে ও যাচ্ছে।

আমি নিজেকে বদ্ধ ঘরে আবদ্ধ করে হাসতে চাই। ইচ্ছা আছে, আমার নিজের একটি রুম নাইট্রাস অক্সাইড বা লাফিং গ্যাস দিয়ে পূর্ণ করবো আর যখন মন চাইবে ঐ রুমে ঢুকে অনাবিল নিরবচ্ছিন্ন হাসি উপভোগ করবো।

    © বোকামী বন্ধ করে দিলাম।
     এরপর ৩ নং বা তৃতীয় পর্ব পড়ুন।
2 Likes